Fiverr বা ফাইভার একটি অনলাইন মার্কেট, ফ্রীল্যাঞ্চ সেবা/সার্ভিস প্রদানের জন্য ৷ ২০১০ সালে ফাইভারের যাত্রা শুরু হয় ৷ ফ্রীল্যাঞ্চারদের সেবা প্রদানের অন্যতম প্ল্যাটফর্ম/মাধ্যম ৷ ফাইভারের মাধ্যমে বিশ্বব্যাপি ক্রেতা বা কাস্টমারের কাছে সার্ভিস অফার করা যায় ৷ চলুন জেনে নেওয়া যাক বিস্তারিত ৷

Shai Wininger এবং Micha Kaufman এই দুইজন ব্যাক্তি ২০১০ সালের ০১ ফেব্রুয়ারী ফাইভার উদ্ভাবন করেন ৷ ফাইভারে ফ্রীল্যাঞ্চ কর্মীরা তাদের বিভিন্ন সার্ভিস অফার করে থাকে ৷ তার মধ্যে অন্যতম হচ্ছে লিখালিখি, অনুবাদ করা, গ্রাফিক ডিজাইন, ভিডিও এডিটিং এবং প্রোগ্রামিং (সব ক্যাটাগরি দেখুন)

ফাইভারে সকল সার্ভিস ৫ ডলার থেকে শুরু হয়, এবং হাজার ডলার পর্যন্ত হতে পারে ৷ প্রতিটা সার্ভিসের অফারকে একটা “GIG/গিগ” বলা হয় ৷

GIG/গিগ:
ফাইভার সেলারদের কাজ লিস্ট করার সুযোগ দেয় আর সেটাই হলো গিগ ৷ তালিকাভুক্ত কাজ অনেক রকমের/ক্যাটাগরির হয়ে থাকে, একটা ভিসিটিং কার্ড ডিজাইন থেকে শুরু করে প্রোগামিংয়ের বিভিন্ন কাজের ৷ ফাইভারে ভিসিট করে আইডিয়া নিতে পারেন ৷

ফাইভারে মুলত দুই ধরনের মানুষ আসে/কাজ করে, Seller এবং Buyer.

Seller/বিক্রেতা:
যারা ফাইভারে কাজ অফার করার মাধ্যমে ফাইভার থেকে উপার্জন করে তাদেরকে সেলার বলা হয় ৷

Buyer/ক্রেতা:
যারা টাকার মাধ্যমে ফাইভার থেকে বিভিন্ন কাজ করিয়ে নেয় তাদের বায়ার বলা হয় ৷

Fiverr Level/ফাইভার লেভেল:
সেলারদের কাজের পারফরমেন্সের ভিত্তিতে ফাইভারে লেভেল ১, লেভেল ২ এবং টপ রেটেড ব্যাজ দেওয়া হয় ৷ পরবর্তী আর্টিকেলে লেভেল নিয়ে বিস্তারিত লেখা হবে ৷

ফাইভারে ফ্রীল্যাঞ্চিংয়ের মাধ্যমে পড়ালেখা বা চাকরির পাশাপাশি উপার্জন করে স্বাবলম্বি হওয়া সম্ভব ৷ কীভাবে কাজ করবেন তা নিয়ে সম্পূর্ন গাইডলাইন পরবর্তী আর্টিকেলে লিখা হবে ৷

কোনো প্রশ্ন থাকলে কমেন্টে জানাতে পারেন ৷ ধন্যবাদ ৷